মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
পাতা

বিশেষ অর্জন

 

বিষয়

কার্যক্রমের সংক্ষিপ্ত বিবরণ

জেলা তথ্য বাতায়ন

ক) ভিশন-২০২১ বাস্তবায়ন তথা ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মাণের লক্ষ্য সামনে রেখে কিশোরগঞ্জ জেলা তথ্য বাতায়নের মাধ্যমে কৃষি, শিক্ষা, স্বাস্থ্য ও পর্যটনের প্রসার সম্পর্কিত তথ্যসমূহ নিয়মিতভাবে হালনাগাদ করা হচ্ছে ।

খ) এই তথ্য বাতায়নের মাধ্যমে স্থানীয় সরকার বিষয়ক এবং জনগণের জন্য প্রয়োজনীয় আইন ও নীতি সম্পর্কে জনগণকে তথ্য প্রদান করা হচ্ছে।

সাপ্তাহিক জনগণের সভা

সপ্তাহের অন্যান্য দিনের সাক্ষাৎ ছাড়াও প্রতি বুধবার দিন ব্যাপী জেলা প্রশাসক জনগণের অভাব, অভিযোগ, আবেদন, নিবেদন শুনছেন এবং তাৎক্ষণিকভাবে নিষ্পত্তিযোগ্য বিষয়সমূহ তৎক্ষণাৎ নিষ্পত্তি করে জনগণকে সেবা প্রদান করা হচ্ছে। এ ছাড়াও টেলিফোনে বা লিখিতভাবে বিভিন্ন দপ্তর/ব্যক্তির সাথে যোগাযোগ করে জনগণের অভাব, অভিযোগ, আবেদন, নিবেদন নিষ্পত্তি করা হচ্ছে। এতে জনদুর্ভোগ লাঘবসহ সরকারের প্রতি জনগণের ইতিবাচক মনোভাব তৈরি হচ্ছে।

জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে LAN সংযোগ স্থাপন

কিশোরগঞ্জের জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের অধিকাংশ কক্ষের মধ্যে LAN সংযোগ স্থাপন করা হয়েছে।  এ নেটওয়ার্ক স্থাপনের মাধ্যমে এ কার্যালয়ের বিভিন্ন শাখার মধ্যে আন্তঃযোগাযোগ ব্যবস্থা উন্নত হয়েছে এবং এর ফলে একদিকে যেমন তথ্যাদি আদান প্রদান সহজতর হয়েছে, অন্যদিকে প্রশাসনের স্বচ্ছতা, জবাবদিহিতা নিশ্চিতসহ জনগণের চাহিদা মতে দ্রুত ও স্বল্প ব্যয়ে সেবা প্রদান সম্ভব হচ্ছে।

শাখা ভিত্তিক সিটিজেন চার্টার

সরকারি কার্যক্রমে জনপ্রশাসনে অধিকতর গতিশীলতা সৃষ্টি ও সেবার মান উন্নয়নের লক্ষ্যে কিশোরগঞ্জ জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে বিভিন্ন শাখাভিত্তিক সিটিজেন চার্টার প্রণয়ন করা হয়েছে এবং তা জনসাধারণের নিকট অবহিত করার ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। জেলা তথ্য বাতায়নেও সিটিজেন চার্টার প্রদর্শিত হচ্ছে।

কম্পিউটার প্রশিক্ষণ

কিশোরগঞ্জ জেলার ১৩টি উপজেলার সর্বমোট ৯১ জন শিক্ষককে কম্পিউটার প্রশিক্ষণ দেয়া হয়েছে। এ প্রশিক্ষণের মাধ্যমে শিক্ষকদের কম্পিউটার বিষয়ে বেশকিছু মৌলিক ধারণা প্রদান করা হয়েছে। এর মধ্যে ছিল মেইন্টেনেন্স, ট্রাবলশুটিং, সফটওয়্যার ইন্সটলেশন, মাইক্রোসফট অফিসের ব্যবহার, LAN সম্পর্কে ধারণা, ইন্টারনেট ও ই-মেইলের ব্যবহার ইত্যাদি। প্রতিটি বিষয়ে তাত্ত্বিক জ্ঞানের পাশাপাশি ব্যবহারিক ধারণাও প্রদান করা হয়। শিক্ষকমন্ডলীর অর্জিত জ্ঞান যথাযথ কিনা এ বিষয়ে তাদের মূল্যায়ন পরীক্ষাও নেয়া হয় এবং তাঁদেরকে সনদপত্র প্রদান করা হয়। অর্জিত জ্ঞান শিক্ষকমন্ডলী তাঁদের ছাত্রছাত্রীদের মাঝে যথাযথভাবে বিতরণ করছেন।

কিশোরগঞ্জ ফাউন্ডেশন

কিশোরগঞ্জ ফাউন্ডেশন একটি অরাজনৈতিক শিক্ষা, ক্রীড়া, সামাজিক, সাংস্কৃতিক ও কল্যাণমুখী স্বেচ্ছাসেবী প্রতিষ্ঠান যা সারাদেশে অধ্যয়নরত কিশোরগঞ্জ জেলার গরীব ও মেধাবী ছাত্রছাত্রীদেরকে প্রাথমিক, মাধ্যমিক, উচ্চমাধ্যমিক, মাদ্রাসা, স্নাতক ও স্নাতকোত্তর পর্যায়ে বৃত্তি প্রদানের মাধ্যমে আর্থিক সহায়তা প্রদান, খেলাধুলা ও ক্রীড়াক্ষেত্রে কৃতী খেলোয়াড়দের আর্থিক সহায়তা প্রদান, কোন ব্যক্তি বিশেষ ক্ষেত্রে উল্লেখযোগ্য অবদান রাখলে তাকে সংবর্ধনা প্রদান, পাবলিক পরীক্ষায় কোন ছাত্রছাত্রী বিশেষ কৃতিত্ব প্রদর্শন করলে কিশোরগঞ্জ ফাউন্ডেশন স্বর্ণপদক প্রদানসহ কিশোরগঞ্জ জেলার বিভিন্ন জনকল্যাণমূলক কাজ করতে পারে। তাছাড়া মেধা লালন করা কিশোরগঞ্জ ফাউন্ডেশন এর অন্যতম লক্ষ্য।

রেকর্ডরুমের দক্ষতা বৃদ্ধি

জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের  রেকর্ডরুম  থেকে  জমির নকল  পেতে হলে ইতোপূর্বে জনগনকে নানা ধরনের  ভোগান্তির স্বীকার হতে হতো কিন্তু বর্তমানে ওয়ান স্টপ সার্ভিসের মাধ্যমে জনগন রেকর্ড রুম থেকে খুব সহজেই  নকল সংগ্রহ করতে পারছে। জেলা ই-সেবা  কেন্দ্রে  যে কোন নকলের আবেদন পাবার সাথে সাথে  কম্পিউটারে এন্ট্রি  দেয়া হচ্ছে এবং আবেদনকারীকে একটি প্রাপ্তি স্বীকারপত্র  প্রদান করা হচ্ছে। প্রাপ্তি স্বীকারপত্রে নকল প্রদানের তারিখ উল্লেখ থাকে। নির্দিষ্ট তারিখে নকল প্রদান করা  সম্ভব না  হলে বা নির্দিষ্ট তারিখের পূর্বেই নকলটি  তৈরী হয়ে গেলে তাকে এসএমএস এর মাধ্যমে জানিয়ে  দেয়া হচ্ছে। এছাড়া ইউনিয়ন তথ্য ও সেবা  কেন্দ্রের মাধ্যমে জনগন খুব  সহজেই নকল সংগ্রহ করতে  পারে। রেকর্ডরুমের নকল কম্পিউটারের মাধ্যমে সরবরাহ করার কারনে আগের তুলনায় স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা বৃদ্ধি  পেয়েছে এবং জনগনের  ভোগান্তি হ্রাস  পেয়েছে।